“গনতন্ত্রের নীতি করন ও টেকসই উন্নয়ন “

নাম ” গনতন্ত্র “, জন্ম ‘ গ্রিস’।

বিখ্যাত দার্শনিক সক্রেটিসও জন্ম গ্রহণ করেন গ্রিসে।

দার্শনিক সক্রেটিস এর মৃত্যুর ঘটনা আমাদের অজানা নয়। তার ওপর মিথ্যা অভিযোগের বিচার কার্যে ৫০১ জনের বিচারক ছিলো। যেখানে বিচারকগণ বিচার কার্য সম্পন্ন করার জন্য তাদের মধ্যে গনতান্ত্রিক পদ্ধতি অবলম্বন করে। কিন্তু সেখানে জ্ঞানহীন বিচারকদের বিচারে ২৮১-২২০ ভোটে সক্রেটিসকে দোষী সাব্যস্ত করা হয়। তাকে বিষ পান করে মৃত্যুর দন্ড দেওয়া হয়। শুধুমাত্র বিচারকদের জ্ঞানহীনতার জন্য যে সক্রেটিস এর মৃত্যুদন্ড তা বর্তমান সময়ে কারো অজানা নয়।

শিষ্য ” প্লেটো ” , গুরু ‘ সক্রেটিস ‘
প্লেটো রাষ্ট্রের নাগরিকদের তিনটি ভাগে ভাগ করেছেন-(১) শাসক সম্প্রদায় (২) সৈনিক (৩) জনসাধারণ ও ক্রীতদাস। রাষ্ট্র তখনই সুপরিচালিত হয় যখন তিন বিভাগের কাজের মধ্যে সুসামঞ্জস্য বর্তমান থাকে এবং প্রত্যেকেই তার দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করে। তিনি বলেছেন, শাসক সম্প্রদায়ের প্রয়োজন জ্ঞান, সৈনিকদের চাই সাহস, বীরত্ব, জনগণের প্রয়োজন সংযম ও শাসকদের প্রতি আনুগত্য। রাষ্ট্রের উন্নতি-অবনতি অনেকাংশে নির্ভর করে শাসকদের ওপর। তাই প্লেটো সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন শাসক নির্বাচনের ওপর।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s